‘কৃষি ঋণ বাড়িয়ে আইএমএফের পূর্বাভাস ভুল প্রমাণ করতে হবে’

Posted: অক্টোবর 31, 2009 in Agriculture, Economics

কৃষি ঋণ বাড়ানোর মাধ্যমে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি (জিডিপি প্রবৃদ্ধি) নিয়ে আইএমএফের (আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল) পূর্বাভাস ভুল প্রমাণ করার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর অতিউর রহমান। শনিবার দুপুরে রাজধানীর গুলশানে জাতীয় শ্যুটিং ফেডারেশন মিলনায়তনে বেসরকারি এক্সিম ব্যাংকের নতুন প্রকল্প ‘এক্সিম কিষাণ’ প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান। আইএমএফ বলছে, বিশ্ব অর্থনীতির চলমান মন্দার কারণে ২০০৯-১০ অর্থবছরে বাংলাদেশে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৫ শতাংশের বেশি হবে না।

গভর্নর বলেন, “কৃষিই আমাদের অর্থনীতির প্রাণ। এই কৃষি খাতের প্রবৃদ্ধি বাড়ানোর মাধ্যমেই আইএমএফের পূর্বাভাস ভুল প্রমাণ করতে হবে। এ জন্য ব্যাংকগুলোকে আরও বেশি বেশি কৃষি ঋণ বিতরণ করতে হবে।” তিনি জানান, চলতি অর্থবছরে ব্যাংকগুলোকে সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার কৃষি ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর লক্ষ্যমাত্রা আড়াই হাজার কোটি টাকা। “আমি চাই বেসরকারি ব্যাংকগুলো এই আড়াই হাজার কোটি টাকারও বেশি কৃষিঋণ বিতরণ করে দেশের কৃষি উৎপাদন বাড়িয়ে আইএমএফের পূর্বাভাস ভুল প্রমাণ করুক। আমার বিশ্বাস আমরা সবাই মিলে তা করতে পারবো”, বলেন তিনি। দেশে প্রথমবারের মতো বর্গাচাষীদের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক ৫০০ কোটি টাকার যে ‘পুনঃঅর্থায়ন’ স্কিম চালু করেছে সে প্রসঙ্গ তুলে গভর্নর বলেন, “যে করেই হোক আইএমএফের পূর্বাভাসকে আমাদের ভুল প্রমাণ করতে হবে।” শুধু শহরের নয়, গ্রামীণ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে গ্রামে বিনিয়োগের জন্য বেসরকারি ব্যাংকগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “শহরের পাশাপাশি গ্রামেও ব্যাংকের শাখা খুলতে হবে। কৃষি উৎপাদন ও কৃষিভিত্তিক শিল্পে বেশি বেশি ঋণ দিতে হবে। “তাহলেই আমাদের প্রবৃদ্ধি বাড়বে। আইএমএফের পূর্বাভাস মিথ্যা হবে।” গত বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে সফররত সাত সদস্যের আইএমএফ প্রতিনিধিদলের প্রধান মাসাতো মিয়াজাকি বলেন, বিশ্ব অর্থনীতির মন্দার কারণে এবার বাংলাদেশে জিডিপি প্রবৃদ্ধি প্রায় ১ শতাংশ পয়েন্ট কমে ৫ শতাংশে নেমে আসবে। একইদিন আইএমএফের পূর্বাভাস প্রত্যাখান করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, কোনো অবস্থাতেই এবার আমাদের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৬ শতাংশের কম হবে না। বেশিও হতে পারে। গত ২০০৮-০৯ অর্থবছরে বাংলাদেশে ৫ দশমিক ৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। চলতি অর্থবছরের বাজেটে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে ৬ শতাংশের মধ্যে থাকার লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এক্সিম ব্যাংকের অনুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন স্থানের ২০০ জন কৃষককে ২০ হাজার টাকা করে ঋণ দেওয়া হয়। ‘এক্সিম কিষাণ’ প্রকল্পের আওতায় চলতি অর্থবছরে ৫০০ জন কৃষককে ঋণ দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে তারা।

সংগ্রহ – ঢাকা, অক্টোবর ৩১ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s