শিক্ষাখাতে বরাদ্দ প্রয়োজনের এক-তৃতীয়াংশেরও কম: মন্ত্রী

Posted: অক্টোবর 31, 2009 in Education

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, বাংলাদেশে শিক্ষাখাতে বরাদ্দ প্রয়োজনের তুলনায় এক-তৃতীয়াংশেরও কম। শনিবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশ রসায়ন সমিতির দিনব্যাপী সিম্পোজিয়ামের উদ্বোধনী পর্বে তিনি এ মন্তব্য করেন। নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, “তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোতে মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করতে জিডিপির শতকরা ৮ ভাগ এ খাতে ব্যয় করতে হয়। আমাদের দেশে এ পরিমাণটি মাত্র ২ দশমিক ২৩ ভাগ যা চাহিদার এক তৃতীয়াংশেরও কম।”

গবেষণার ক্ষেত্রে ‘উল্লেখ করার মতই নয়’ মন্তব্য করে তিনি বলেন, “স্বল্প এ বরাদ্দ গবেষণা প্রশাসন চালাতেই ব্যয় হয়ে যায়। ফলে মূল গবেষণা কাজ এগিয়ে নেওয়া সম্ভব নয়।” পিছিয়ে পড়ার সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে তা থেকে উত্তরণে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী। তবে তিনি বলেন, “এ সকল সমস্যা সমাধান করতে গিয়ে এমন কিছু বাধা পেয়েছি, যেগুলোর কথা হয়ত কোন দিনই প্রকাশ করা সম্ভব হবে না।” শিক্ষামন্ত্রী বলেন, “শিক্ষানীতির বিরোধিতা করার সময় এখনও আসেনি। কারণ এটি এখনও খসড়া আকারে রয়ে গেছে। তবে অনানুষ্ঠানিকভাবে এখনও যে কেউ মতামত দিতে পারে। এ ধরনের মতামতকে আমরা স্বাগত জানাই।” প্রস্তাবিত শিক্ষানীতিতে ইসলামী শিক্ষাকে উপেক্ষা করা হয়েছে এ দাবি করে ধর্মভিত্তিক কিছু দল এর বিরোধিতা করে আসছে। এ ব্যাপারে সরকারের বক্তব্য এর উল্টো। উদ্বোধনী পর্বে অধ্যাপক ড. এম মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে শিক্ষামন্ত্রী ছাড়াও আরো বক্তব্য দেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, অধ্যাপক আলতাফ হোসাইন। স্বাগত বক্তব্য দেন অধ্যাপক ড. আবুল খায়ের।  অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, “বাংলাদেশে তথা সারা বিশ্বে খাদ্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে যে বিপ্লব ঘটেছে, তা প্রধানত রসায়ন বিজ্ঞানের অবদান। বিকল্প জ্বালানি তৈরিতেও এ বিজ্ঞান আশ্চর্যজনক সাফল্য অর্জন করছে। ..আশা করা যায়, রসায়ন বিজ্ঞানের অবদানে পৃথিবীতে এক সময় খাদ্য সংকট বলে কিছু থাকবে না,অন্তত বাংলাদেশে যে থাকবে না তা হয়তো নির্ভয়েই বলা যায়।” সমাপনী পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ড.আলাউদ্দিন আহমদ, জাবি উপাচার্য অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবির। সিম্পোজিয়ামের মূল পর্বে ৪টি প্রবন্ধ উপস্থাপিত হয়। এসব প্রবন্ধে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে রসায়ন শিক্ষা-পরিস্থিতি তুলে ধরা হয়।

সংগ্রহ – ঢাকা, অক্টোবর ৩১ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s