‘লিমনের জন্য’ স্বাক্ষর সংগ্রহ অভিযান: অশ্রুবিন্দু ও অগ্নিকণায়…

Posted: জুন 13, 2011 in Uncategorized

নিশাত জাহান রাণা, কনক বর্মন ও অদিতি ফাল্গুনী

প্রিয় বন্ধুগণ,

গত ২৩ শে মার্চ বৃহত্তর বরিশালের ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর গ্রামে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর এলিট ফোর্স ‘র‌্যাব’ কর্তৃক বিনা দোষে ও বিনা বিচারে গুলিবিদ্ধ হয়ে ষোল বছরের দরিদ্র, শ্রমজীবী কিশোর ও এইচ,এস,সি, পরীক্ষার্থী লিমন হোসেনের পা হারানোর ঘটনাটি ইতোমধ্যেই গোটা বাংলাদেশের সকল সাধারণ নাগরিকের তীব্র ক্ষোভ, শোক ও প্রতিবাদের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়িয়েছে। সরকার ও সংশ্লিষ্ট ‘র‌্যাব’ বাহিনীর থেকে এখনো পর্যন্ত এঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করা হয় নি। এমনকি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক পরিচালিত তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশের দু’ঘণ্টার ভেতর প্রত্যাহার করা হয়েছে। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন ও আইন ও সালিশ কেন্দ্রের উদ্যোগে ইতোমধ্যেই লিমনকে ঢাকার শ্যামলীস্থ’ পঙ্গু হাসপাতাল ও পুনর্বাসন কেন্দ্র থেকে ধানমণ্ডির ‘গণস্বাস্থ’ ক্লিনিকে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। সাভারের সিআরপি হাসপাতালের সহায়তায় লিমনের কর্তিত বাম পায়ে কৃত্রিম পা সংস্থাপনের আগে বেশ কিছুদিন ধরে ফিজিওথেরাপি দিতে হবে। ‘গণস্বাস্থ’ কর্তৃপক্ষ লিমনকে এই ফিজিওথেরাপি, ওষুধ ও চিকিৎসা পরামর্শের সেবা বিনা পয়সায় দিতে সম্মত হয়েছেন। লিমনের দরিদ্র পরিবারকে শুধু স্বল্পমূল্যে তিন বেলা খাবারের ব্যয়ভার বহন করতে হবে। এছাড়াও সংবাদপত্র, আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, সচেতন ছাত্র সমাজ, কবি-লেখক-শিল্পী-বুদ্ধিজীবী সহ সমাজের সর্বস্তরের মানুষের ঐকান্তিক প্রচেষ্টার ফলাফল হিসেবেই লিমনের এ ঘটনা দেশের হাজারো অন্যায়-অবিচারের ঘটনার মতো পর্দার আড়ালে হারিয়ে যায় নি। দেশের বামপন্থী বিভিন্ন মোর্চা ও সামাজিক-রাজনৈতিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন লিমনের জন্য ‘মানব বন্ধন’ সহ নানা কর্মসূচী গ্রহণ করেছেন। ‘লিমনের জন্য, জীবনের জন্য’ নামী আমাদের এই নিতান্ত অ-রাজনৈতিক ও ফেসবুক নির্ভর সংগঠন গত ১৩ই মে ঢাকার শাহবাগস্থ’ জাতীয় যাদুঘরের সামনে এক সফল মানব-বন্ধন কর্মসূচী আয়োজন করেছিল। পরবর্তী সময়ে আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে লিমনকে একাধিকবার হাসপাতালে দেখতে যাওয়া হয় এবং সেসংক্রান্ত মানবিক কলাম দেশের একাধিক বহুল প্রচারিত পত্রিকা, ব্লগ ও ফেসবুকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত হয়। আমাদের কর্মসূচীর পরবর্তী উদ্যোগ হিসেবে আগামী ১৫ই জুন বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টি,এস,সি সড়কদ্বীপে আমরা লিমনের জন্য একটি গণ-স্বাক্ষর সংগ্রহ কর্মসূচী উদ্বোধন করতে যাচ্ছি। আগামী ১৫ই জুন থেকে ৩০ শে জুন দু’সপ্তাহ ধরে ঢাকা নগরীর বিভিন্ন স’ানে এই গণ-স্বাক্ষর সংগ্রহ চলবে (পাশাপাশি ফেসবুকে ঢাকার বাইরের বন্ধুদেরও আহ্বান জানাবো যেন তাদের নিজ নিজ শহরে এই স্বাক্ষর সংগ্রহের দায়িত্ব তাঁরা নেন)। এছাড়া, বুধবার ১৫ই জুন থেকেই ইন্টারনেটেও আমাদের গণস্বাক্ষর সংগ্রহ অভিযান চলবে। গণস্বাক্ষর সংগ্রহ অভিযান: আমাদের মূল দাবি

১. লিমনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার করা হোক। ২. দোষী র‌্যাব কর্মকর্তাদের বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করা হোক। গোটা ঘটনায় নিরপেক্ষ ও স্বাধীন বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিশন গঠিত হোক। ৩. রাষ্ট্রকে গোটা ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ’ ও পঙ্গু হয়ে যাওয়া কিশোর লিমন হোসেনের চিকিৎসা ও পড়াশোনার সামগ্রিক ব্যয়ভার বহন করতে হবে। ৪. ২০০৪ সালে ‘র‌্যাব’ গঠিত হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত বিনা বিচারে ক্রসফায়ারে মেরে ফেলা ৭০০ নিরীহ বাংলাদেশী নাগরিকের হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় স্বাধীন বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিশন গঠিত হোক। ৫. রাষ্ট্রের নাগরিকদের নির্বিকার ও নির্বিচার হত্যাকারী এলিট ফোর্স ‘র‌্যাবে’র আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা প্রশ্নে সত্যিই কতটুকু দরকার সেবিষয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের নীতি নির্দ্ধারক মহল, দেশে সক্রিয় মানবাধিকার কমিশন, মানবাধিকার সংগঠনসহ সবাইকে ভেবে দেখতে ও প্রয়োজনীয় সংলাপের সূচনা করতে অনুরোধ জানাই।

‘আমার এখন হাজারটা পা’ : অশ্রুবিন্দু ও অগ্নিকণায় হাসপাতালে লিমনকে দেখতে গেলে সে আমাদের বলেছে যে এক পা হারিয়েও আজ তার হাজারটা পা। দেশের সাধারণ মানুষের অপার ভালবাসাই তার এ আত্মবিশ্বাসের মূল ভিত্তি। লিমন এখনো খুব সুস্থ’ নয়। বিভিন্ন সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে প্রকাশ যে পানি খেতে গেলে বা শৌচ কার্যের সময় তার বুকে ব্যথা হয়। হাসপাতালে প্রথম দিন আমরা লিমনকে যেমনটা দেখেছি, দ্বিতীয় দিনে তাকে অপেক্ষাকৃত ক্লান্ত মনে হয়েছে। এই অসুস্থ’ কিন্তু আত্মপ্রত্যয়ী কিশোরের সারা জীবনের স্বপ্নকে আমরা যেন কিছুতেই ভেঙ্গে যেতে না দিই। আসুন, অশ্রুবিন্দু ও অগ্নিকণায় আমরা সমবেত হই আগামী ১৫ই জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টি,এস,সি, সড়কদ্বীপে। দেশের সকল সাধারণ মানুষ, কবি-লেখক-শিল্পীসহ সবাইকে আহ্বান জানাই ১৫ই জুনের স্বাক্ষর সংগ্রহ অভিযান সফল করতে।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s